চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করতে চাইলে ভাবতে হবে
চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করতে চাইলে ভাবতে হবে

এমন অনেক সাহসী যুবকরা রয়েছে, যারা সারাদিন অফিস শেষ করে পাশাপাশি ব্যবসা করে যাচ্ছে। আমেরিকার এক জরিপে বলা হয়েছে, আধুনিক তরুণ চাকরিজীবীদের মধ্যে ৬৬ শতাংশেরও বেশি তরুণরা চাকরি করার পাশাপাশি ব্যবসা করার স্বপ্ন দেখেন। যদি এমন হয় আপনিও চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করার চিন্তাভাবনা করছেন, তাহলে আজকের লেখা ১০টি বিষয় বিবেচনা করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ভালো করে চিন্তা করুণ চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা আপনার জন্য কতটা জরুরি?

আমাদের মধ্যে তরুণদের যেকোনো কাজে শুরুর দিকে অনুপ্রেরণার পরিমাণ বেশি থাকে। এজন্য আমরা চিন্তা না করে বেশি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি। চাকরির পাশাপাশি নিজের ব্যবসা পরিচালনা করা বেশ কঠিন কাজ হবে। এজন্য আপনাকে চিন্তা করতে হবে, চাকরির পাশাপাশি ব্যবসার জন্য বড় সিদ্ধান্ত গ্রহণ বা এগিয়ে যাওয়ার সাহস করতে আপনি কতটুকু প্রস্তুত।

আপনার ব্যবসার আইডিয়াটির মূল্যায়ন করুন:

ব্যবসা শুরু করার আগে নতুন কোনো আইডিয়া নিয়ে কাজ করতে প্রথমে সেই আইডিয়াটি সম্ভাবনা কতটুকু তা নিয়ে বিশ্লেষণ করতে হবে। বাজারে চাহিদা নেই এমন কোন পণ্যের আইডিয়া নিয়ে কাজ করা যাবেনা। এজন্য আপনাকে খোঁজে বের করতে হবে, আপনার আইডিয়াটি গ্রহণযোগ্য কিনা। যদি আইডিয়াটি গ্রহণযোগ্যতা থাকে, তাহলে কতটা রয়েছে তা বিবেচনা করুণ।

চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা শুরুর আগে প্রতিযোগিদের নিয়ে গবেষণা করুণ:

আপনি যে ব্যবসা শুরু করেন না কেন, বাজারে আপনার প্রতিযোগি থাকবেই। তাই ব্যবসায় নিজের অবস্থান ধরে রাখতে হলে, অন্যান্য প্রতিযোগিদের নিয়ে গবেষণা করুণ। এই জায়গায় যদি কোন ভুল গবেষণা করেন, তাহলে আপনাকে সহজে হারিয়ে দিবে আপনার প্রতিযোগিরা।

ব্যবসার লক্ষ্য হতে হবে বাস্তবিক, নির্ণয়যোগ্য ও বিস্তারিত:

ব্যবসার যে বিষয়টি নিজের চিন্তাধারায় ভালো লাগছে না, এমন কোন লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য নির্ধারণ করা যাবেনা। যা কল্পনা করতে ভালো দেখাচ্ছে না, তা শুরু করার পরেও সম্ভাবনাময় না হতে পারে। আপনার লক্ষ্যটি বাস্তবসম্মত অবস্থান পর্যালোচনা করুণ। ব্যবসাটিতে সফল হতে কি কি লাগবে এবং কিভাবে তা ব্যবহার করতে হবে তা স্বপ্নের চিন্তায় ব্যবহার করুন।

নিজের দক্ষতা, সামর্থ্য ও দুর্বলতা খোঁজে বের করুন :

নিজের প্রতি বিশ্বাস না থাকলে কখনও কিছু করা উচিত নয়। চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা শুরু করার আগে নিজের কাছে প্রশ্ন করুণ, আপনি চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য কতটুকু প্রস্তুত? ভালো করে বিশ্লেষণ করুণ, আপনার কোন দক্ষতাটির মাধ্যমে সম্পূর্ণ নতুন একটি ব্যবসা স্থাপনে যথেষ্ট হতে পারে। যদি এমন কোন দক্ষতা না থাকে, তবে কখনও কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবেনা। নিজের দূর্বলতা কাটিয়ে তারপর ব্যবসা শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করুণ।

পরিকল্পনা গ্রহণ করুণ:

চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করতে
Image: Pixabay

কোন কাজই পরিকল্পনা ছাড়া হয়না। যে কোন কাজ শতভাগ সফল করার জন্য কাজ শুরু করার আগে পরিকল্পনা গ্রহণ প্রয়োজন। আপনার কাজের প্রথম পদক্ষেপ কখন থেকে শুরু হবে, এবং কখন কোন কাজটি শেষ করতে হবে তার সিদ্ধান্তের বিষয়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ।

আশেপাশের সুযোগ সমূহ কাজে লাগান:


চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করার জন্য প্রথমে নিজেকে ঝালাই করুন আপনার আশেপাশের বিভিন্ন সুযোগ সমূহ কাজে লাগিয়ে। আপনার বন্ধু বা পরিচিত মহলের কাজে সহায়তা করুন। অন্যদের সহায়তা করার মাধ্যমে যাচাই করুণ নিজের কাজ করার ক্ষমতা।

নিজের লক্ষ্য ও কাজ ভিন্ন করবেন না:

কথায় আছে, পরিকল্পনা মতো কাজ করুণ। নিজের লক্ষ্য যেমন ছিল ঠিক সেভাবে কাজ করার চেষ্টা করুণ। লক্ষ্য থেকে বেশি বা কম করার চেষ্টা করবেন। সবসময় এটা মাথায় রাখবেন কিছু বেশি অর্জন করতে গিয়ে যেন সবটাই হারিয়ে না যায়।

চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা শুরু করতে লাভক্ষতি যাচাই করুণ:

হুট করেই ব্যবসা শুরু করলে চলবেনা। আপনি কেন চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন এবং এতে আপনার কি কি ক্ষতি হতে পারে আর কি কি লাভ হতে পারে তা যাচাই করুণ। কোন কাজ একা আবেগের দিয়ে হয়না। কাজকে সফল করার জন্য বিবেকের ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। সুতরাং চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা করতে আগে অবশ্যই লাভক্ষতি যাচাই করতে হবে।

ব্যবসা শুরুর আগে পণ্যের চাহিদা যাচাই করুণ:

আপনি যে পণ্য নিয়ে কাজ করতে যাচ্ছেন, তা নিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে ফিডব্যাক গ্রহণ করুণ। পুরোপুরি ব্যবসায় না যাওয়ার আগে এটা আপনাকে বুঝাতে সাহায্য করবে আপনার পছন্দ করা পণ্য নিয়ে কাজ করতে পারবেন কি-না।

Leave a Reply