ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ
সুন্দর একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়

লেখার শুরুতে বলতে চাই। ওয়েবসাইট তৈরি করা জটিল কোন কাজ নয়। সামান্য কিছু টাকা খরচ করে বর্তমানে নিজের পছন্দের ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। আপনি যেহেতু সাইট তৈরির পরিকল্পনা করছেন। সুতরাং আমি মনে করি, আপনি হয়তো এটা জানেন যে, বর্তমান সময়ে অনলাইন থেকে প্রফেশনাল ও প্যাসিভ ইনকামের জন্য অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ও ব্লগিং পদ্ধতি খুবই জনপ্রিয় মাধ্যম। কেননা আপনি চাইলে অবশ্যই একটা ব্লগ বা ওয়েবসাইট করে আজীবন ইনকাম করার একটা রাস্তা তৈরি করতে পারেন।

আপনি বিশ্বাস করেন আর না করেন। যারা ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ওপর কাজ করেন তারা ভালো জানেন। একটা ওয়েবসাইট জীবনের অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন করতে কেমন ভূমিকা রাখতে পারে। মূলত যারা জীবনের জন্য একটা প্যাসিভ ইনকামের রাস্তার খোঁজ করছেন, আমি তাদেরকে বলবো আপনি চাইলে ব্লগিং বা একটা ওয়েবসাইটকে প্যাসিভ ইনকাম এর রাস্তা হিসেবে বেচে নিতে পারেন।

সুন্দর একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়
সুন্দর একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়

ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ হবে তা জানার আগে চলুন প্রথমে জেনে নিই ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি টুলস এর প্রয়োজন হয়?
ওয়েবসাইট তৈরির খরচটা নির্ভর করে আপনার চাহিদার উপর। আপনি কেমন সাইট তৈরির পরিকল্পনা করছেন তার সাথে খরচের সম্পর্ক রয়েছে। আমরা আমাদের চাহিদা পূরণ করতে যতবেশি টুলস ও ফিচার যুক্ত করবো, ততই বেশি টাকা আমাদের খরচ করতে হবে। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে সাইট তৈরি করলে আমরা অনেকগুলো টুলস ফ্রি-তে ব্যবহার করতে পারি। কিন্তু প্রয়োজন মতো লাভবান হতে চাইলে, আমাদের এই টুলস গুলোর প্রিমিয়াম ভার্সন ব্যবহার করতে হয়।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি টুলস এর প্রয়োজন?

১. ডোমেইন
২. হোস্টিং
৩. থিম ও
৪. প্লাগিন, এবং
৫. এসএসএল সার্টিফিকেট।

সাধারণত এই পাঁচটি টুলস থাকলে আপনি একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। এগুলো হচ্ছে মৌলিক উপাদান। এগুলো ছাড়া ওয়েবসাইট তৈরি করার চিন্তা করা যায় না। এই টুলগুলোর মধ্যেও আপনি সবকিছু ফ্রি-তে পাবেন। যা দিয়ে একটা সাইট আপনি তৈরি করতে পারবেন। তবে অনলাইন থেকে আয়ের চিন্তা থাকলে ফ্রি-তে সাইট তৈরি করে কোন কাজে আসবেনা। কারণ, এখানে আপনি আপনার চাহিদা মতো পরিবর্তন ও কাস্টমাইজড করতে পারবেন না। এবং আয় করার পদ্ধতিও জটিল হবে।

এবার চলুন আমরা জেনে নিই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়?

খরচ সম্পর্কে আমি প্রথমে বলেছি। আপনি নিজের চাহিদা মতো টাকা বিনিয়োগ করে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। এটা নির্ভর করবে আপনার চাহিদার উপর। আপনি সম্পূর্ণ ফ্রি-তে ও সাইট তৈরি করতে পারবেন তা আপনাকে জানিয়ে দিয়েছি। এখন আমরা প্রিমিয়াম সাইট তৈরির জন্য কি কি টুলসের জন্য কত টাকা খরচ করতে হবে। সেই বিষয়ে ধারণা নিব।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে ডোমেইন খরচ:

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য অবশ্যই একটা ডোমেইন প্রয়োজন হয়। ডোমেইন একটা সাইটের পরিচয় বা নাম। এটি ফ্রি-তে ও প্রিমিয়াম দুই পদ্ধতিতে ব্যবহার করা যায়। তবে ফ্রি ডোমেইনের চাহিদা খুবই কম থাকে। প্রিমিয়াম ডোমেইনের ক্ষেত্রে আপনি পছন্দ মতো এক্সটেনশন ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু ফ্রি-তে ইচ্ছে মতো পছন্দের এক্সটেনশন ব্যবহার করতে পারবেন না। একটি প্রিমিয়াম ডোমেইন ক্রয় করতে আপনার ২৫০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত প্রয়োজন হতে পারে। ডোমেইন ক্রয় করার প্রথম বছর হয়তো আপনি ২৫০ টাকা থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে পেতে পারেন। তবে দ্বিতীয় বছর থেকে রিনিউ করার সময় অধিকাংশ ডোমেইনের জন্য ১০০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা খরচ হয়।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে হোস্টিং খরচ:

আপনার ওয়েবসাইটের ডাটা গুলো সংরক্ষণ করার জন্য অবশ্যই একটা হোস্টিংও আপনাকে ক্রয় করতে হবে। হোস্টিং ক্রয় করার ক্ষেত্রে আপনাকে সতর্ক করা প্রয়োজন। মনে রাখবেন, আপনার হোস্টিংয়ের উপর নির্ভর করবে আপনার সাইটের পার্ফমেন্স। আপনি যদি দ্রুতগতির হোস্টিং সার্ভিস ক্রয় করতে ব্যর্থ হোন। তাহলে মনে রাখবেন আপনি আপনার প্রফিট হারানো ফাঁদে পড়েছেন।

সামান্য টাকার জন্য কখনও হোস্টিংয়ের জন্য অবহেলা করবেন না। আপনার সাইটের লোডিং গতি যত বেশি হবে আপনার সাইটের ভিজিটর ততই বাড়তে থাকবে। যদি লোডিং গতি কম হয় তাহলে আপনাকে ভিজিটর হারাতে হবে। ১ জিবি হোস্টিং এক বছরের জন্য ক্রয় করতে আপনাকে ১০০০ থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে হতে পারে। তবে বিভিন্ন হোস্টিং কোম্পানি বিভিন্ন রকমের মূল্য নিয়ে থাকে। চেষ্টা করবেন “BlueHost” “Namecheap” ও “HostGator” থেকে হোস্টিং ক্রয় করার জন্য। আমার ওয়েবসাইট এবং আমার সকল ক্লায়েন্টের সাইটের জন্য আমি এই কোম্পানিগুলোর সার্ভিস ব্যবহার করতে পরামর্শ দিয়ে থাকি। আমার দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি। এই কোম্পানিগুলো তাদের সেরা সার্ভিস দিয়ে আমাকে অনেক বেশি সাহায্য করেছে।

সেরা ডোমেইন এবং হোস্টিং প্রোভাইডার কোম্পানি:

ওয়েবসাইট তৈরি করতে থিম খরচ:

ওয়েবসাইটকে সুন্দর্য দিতে ও সাজিয়ে তুলতে একটা ভালো থিম অবশ্যই প্রয়োজন হবে। এক্ষেত্রে থিমটি আপনি ফ্রি ব্যবহার করতে পারেন অথবা প্রিমিয়াম থিম টাকা দিয়ে ক্রয় করতে পারেন। আপনার যদি থিম ক্রয় করার জন্য যথেষ্ট পরিমাণ মূলধন না থাকে। আমরা আপনাকে ফ্রি থিম ব্যবহার করতে বলবো। ফ্রি থিম যদি আপনার চাহিদা পূরণ করতে না পারে। আপনাকে একটা প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করতে হবে। এক্ষেত্রে আমরা আপনাকে সবচেয়ে কম খরচে একটা প্রিমিয়াম থিম দিয়ে সাহায্য করতে পারি।

মাত্র $1 থেকে $2 ডলার দিয়ে একটা থিম আমাদের কাছ থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। আমরা আপনার চাহিদা পূরণ করতে GPL থিম সরবরাহ করে থাকি। থিম সংগ্রহ করতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন। তবে একটা প্রিমিয়াম থিম ক্রয় করতে $২০ ডলার থেকে $৬০ এর মত খরচ হতে পারে। $৬০ মানে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫১০০ টাকা। আপনার সাইটের জন্য একটি সেরা থিম পছন্দ করতে থিমফরেস্ট ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন আমি নিচের লিংকটি দিয়ে দিচ্ছি:

এসএসএল সার্টিফিকেট:

এসএসএল হচ্ছে ওয়েবসাইটকে সুরক্ষিত রাখার টুল। আপনি এটা চাইলে ব্যবহার করতে পারেন বা নাও করতে পারেন। তবে এসএসএল ব্যবহার করা ভালো। ই-কমার্স ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে অবশ্যই এসএসএল ব্যবহার করবেন। এখন আসি একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে টোটাল কত টাকা খরচ হবে তা যোগ করে দেখি।

  • ডোমেইন = ১০০০ টাকা
  • হোস্টিং = ৪০০০ টাকা
  • থিম = ৫১০০ টাকা
  • এসএসএল = ১৫০০ টাকা

মোট = ১১৬০০ টাকা।

আপনি যদি এখানে টুলস গুলো ক্রয় করতে বাংলাদেশি সার্ভার ব্যবহার করেন, তাহলে সবমিলিয়ে ৫০০০ টাকা খরচ হতে পারে। আপনি যদি প্রফেশনাল কাউকে দিয়ে একটা ওয়েবসাইট তৈরি করে নেন, তাহলে ৫০০০ থেকে ৬০০০ টাকার মধ্যে সবকিছু দিয়ে দিবে। আপনি চাইলে আমাদের মাধ্যমে একটা প্রিমিয়াম ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। আমরা আপনাকে সবচেয়ে কম খরচে একটা প্রিমিয়াম ওয়েবসাইট তৈরি করে দেব। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে আমাদের সাইটের Contact Me পেইজ ভিজিট করুন।

ধন্যবাদ।

Leave a Reply