ওয়েবসাইট এসইও করার সহজ কিছু ধাপ – Website SEO (2)
ওয়েবসাইট এসইও করার সহজ কিছু ধাপ – Website SEO

ওয়েবসাইট এসইও করার সহজ কিছু ধাপ নিয়ে আজকের আলোচনা। অনেক টাকা খরচ করে সেরা ডিজাইন দিয়ে সুন্দর একটা ওয়েবসাইট তৈরি করলেন এবং ওয়েবসাইটে অনেকগুলো আর্টিকেল প্রকাশ করলেন৷ কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটে কোন ট্রাফিক নেই। তাহলে কি হবে এতো সুন্দর ডিজাইন ও এতগুলো কার্যকর আর্টিকেল প্রকাশ করে?

ওয়েবসাইট এসইও করার সহজ কিছু ধাপ
ওয়েবসাইট এসইও করার সহজ কিছু ধাপ

মনে রাখবেন, আপনার ওয়েবসাইট কত সুন্দর তা দেখে নয়। আপনার ওয়েবসাইটে কি রকম প্রয়োজনীয় কন্টেন্ট আছে এবং এসইও এর গুরুত্ব কতটুকু দিয়েছেন। তার উপর ভিত্তি করে আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক আসতে থাকবে। আবার ওয়েবসাইটে কোন কন্টেন্ট পাবলিশ না করে শুধু এসইও করলেও হবে না। এজন্য আমি কার্যকর কন্টেন্ট এর কথাও বললাম।

এসইও (SEO) কি?

এসইও হচ্ছে “সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন” এর সংক্ষিপ্ত নাম। কোন ওয়েবসাইটকে নির্দিষ্ট কিছু কিওয়ার্ডের মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিনের সাথে পরিচিত করিয়ে দেওয়ার পদ্ধতিকে এসইও বলে।

ওয়েবসাইট এসইও কি জন্য করবেন?

সহজ কথায় আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া মাধ্যমে ওয়েবসাইটে ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য এসইও করতে হবে।

Website SEO করার জন্য কি কি বিষয় নিয়ে কাজ করতে হবে?

এসইও বিষয়টি বলতে সহজ ও ছোট দেখালেও এটা ছোট কোন বিষয় নয়। এটা একটা দীর্ঘ পদ্ধতি। একটা ওয়েবসাইটে ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য আপনাকে প্রতিনিয়ত কাজ করে যেতে হবে। এবং সময় অনুযায়ী এসইও এর পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে।

সুতরাং, এখানে আমি আমার জানা জ্ঞান থেকে কিছু বিষয়ে আলোচনা করবো।

১. আর্টিকেল রাইটিং:

ওয়েবসাইটের জন্য আপনি যখন কোন বিষয় নিয়ে আর্টিকেল লিখতে শুরু করবেন, তখন কিছু বিষয় মনে রাখবেন।

ক. টাইটেল যেন সুন্দর এবং সহজ অর্থবোধক হয়।
খ. প্রতিটি আর্টিকেল যেন ৩০০ শব্দের বেশি হয়। তবে নতুন ওয়েবসাইটে জন্য প্রথম দশটির মত আর্টিকেল ১০০০ শব্দের বেশি হলে ভালো হয়।
গ. কন্টেন্ট গুলো যেন গোছানো থাকে এবং সহজে পড়া যায়।
ঘ. প্যারাগ্রাফের প্রতিটি অংশ যেন ৩০০ শব্দের বেশি না হয়।

টাইটেল এসইও :

টাইটেল লেখার সময় অবশ্যই টাইটেল যেন এসইও ফ্রেন্ডলি হয়। টাইটেলে অবশ্যই ফোকাস কিওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে। এবং ফোকাস কিওয়ার্ডটি যেন প্যারাগ্রাফ এর H1 থেকে H6 ট্যাগের মধ্যে থাকে।

Meta Description :

আর্টিকেল প্রকাশ করার সময় Meta Description ব্যবহার করতে ভুল করা যাবে না। অবশ্যই একটা সুন্দর Meta Description ব্যবহার করতে হবে।

ইন্টারনাল ও আউটার লিঙ্ক :

প্রতিটি আর্টিকেল পাবলিশ করার সময় অবশ্যই ইন্টারনাল ও আউটার লিঙ্ক ব্যবহার করতে হবে।

ছবি সংযুক্ত করা:

ছবি সংযুক্ত করার সময় প্রতিটি ছবিতে অল্টারট্যাগ ব্যবহার করতে হবে।

সার্চ ইঞ্জিন সাবমিট :

ওয়েবসাইটে পর্যাপ্ত পরিমাণে কন্টেন্ট আপলোড করা হলে ওয়েবসাইটটিকে Google, Yahoo এবং Bing এ সাবমিট করতে হবে। মনে রাখবেন, আপনার ওয়েবসাইটে অর্গানিক ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য আপনার ওয়েবসাইটটি সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখানে আমি বেসিক এসইও এর সাধারণ কিছু বিষয়ে আলোচনা করছি। এগুলো হচ্ছে ওয়েবসাইটের বা ব্লগের জন্য সাধারণ এসইও।

ধন্যবাদ।

Leave a Reply